‘ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৮’ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামী ১২-২০ জানুয়ারি। এই উৎসবে থাকবে ‘বাংলাদেশ প্যানারোমা’ বিভাগ। সিনেমা সংকটের কারণে বিগত দুই বছর এই বিভাগটি রাখা যায়নি বলে জানান উৎসব পরিচালক ও রেইনবো ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি আহমেদ মুজতবা জামাল।

উৎসবে বাংলাদেশের ১০ চলচ্চিত্র

তিনি বলেন, ‘গত দুইবারের উৎসবে বন্ধ ছিল বাংলাদেশ প্যানারোমা বিভাগটি। কারণ বাংলাদেশি ছবির সংকট। এ বছর নতুন করে বিভাগটি আবার যোগ করা হয়েছে উৎসবে। ১৬তম বারের মতো আয়োজিত এই উৎসবে বিদেশের চলচ্চিত্রের পাশাপাশি ‘বাংলাদেশ প্যানারোমা’ বিভাগে প্রদর্শিত হবে দেশের ১০টি ছবি।
উৎসবে প্রদির্শিত হবে আবু সাইয়ীদের একজন কবির মৃত্যু, রেজা গালিবের কালের পুতুল, হাসিবুর রেজা কল্লোলের সত্তা, নাদের চৌধুরীর মেয়েটি এখন কোথায় যাবে, আকরাম খানের খাঁচা, ফাখরুল আরিফিন খানের ভুবন মাঝি, তৌকীর আহমেদের হালদা, শামীম আখতারের রিনা ব্রাউন, সাজেদুল আউয়ালের ছিটকিনি ও লতা আহমেদের সোহাগীর গয়না ।
বাংলাদেশ প্যানারোমা বিভাগে অংশ নেয়া ১০ ছবির মধ্য থেকে দুটি ছবি জিতবে সেরার পুরস্কার। এ বিভাগের সেরা ছবি বাছাইয়ের জন্য তিনজন জুরির একটি দল গঠন করা হয়েছে।
জুরি সদস্যদের মধ্যে একজন থাকবেন বাংলাদেশি, অন্য দুজন বিদেশি। তাদের বিবেচনার ভিত্তিতেই বাংলাদেশ প্যানারোমা বিভাগে সেরা চলচ্চিত্র ও সেরা পরিচালকের পুরস্কার দেয়া হবে।