আজ বুধবার বিকাল ৪টা পর্যন্ত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তিতর্কের শুনানি চলবে। কাল বৃহস্পতিবারও সকাল ১০টার মধ্যে আদালতে হাজির হতে হবে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বুধবার বেলা ১২টার দিকে খালেদা জিয়ার যুক্তিতর্ক শুনানির সময় এ আদেশ দেন বকশীবাজারে স্থাপিত ঢাকার পাঁচ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান।

আদালত খালেদার আইনজীবীদের উদ্দেশে বলেন, ‘এখন সময় ১২টা, কিভাবে আদালত চলে? আমি (বিচারক) সাড়ে ৯টায় আসতে পারি, আপনারা আসতে পারেন। কিন্তু উনি (খালেদা জিয়া) আসতে পারেন না কেন? এভাবে আদালত চলতে পারে না।’

আদালত আরও বলেন, ‘আগামীকাল থেকে আদালত সাড়ে ১০টায় বসবে।’

এর আগে বেলা ১১টা ৫৩ মিনিটে আদালতে পৌঁছান বিএনপি চেয়ারপারসন।।

এর পরই অষ্টম দিনের মতো জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় এজে মোহাম্মদ আলী খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন শুরু করেন। এর আগেও বেলা ১১টার দিকে গুলশানের বাসা থেকে বকশীবাজারে স্থাপিত ঢাকার পাঁচ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের উদ্দেশে রওনা দেন খালেদা জিয়া।

৪ জানুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সপ্তম দিনের মতো যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। ওই দিন যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ না হওয়ায় পরবর্তী যুক্তিতর্কের জন্য আজকের দিন ধার্য করেন আদালত।

এ ছাড়া একই আদালতে জিয়া চ্যারিটেবল মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তিতর্কের জন্য দিন ধার্য রয়েছে।এর আগে গত বছরের ৩০ নভেম্বর দুর্নীতির এ দুই মামলায় খালেদা জিয়া হাজির না হলে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিলেন আদালত।

এরও আগে চলতি বছরের ১২ অক্টোবর বিদেশে থাকাকালে খালেদা জিয়ার জামিন বাতিল করে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছিল। বর্তমানে তিনি অস্থায়ী জামিনে আছেন। প্রতি ধার্য তারিখেই আদালতে হাজিরা দিচ্ছেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের নামে এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রাজধানীর রমনা থানায় প্রথম মামলাটি করা হয়।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগে ২০১০ সালের ৮ আগস্ট রাজধানীর তেজগাঁও থানায় একটি মামলা করে দুদক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here