ধর্ষণ মামলায় ২০ বছরের কারাদণ্ড ঘোষণার পর কারাবাসের আতঙ্কে কেঁদে ফেলেছিলেন ভারতের বিতর্কিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিং।

কিন্তু ২০ বছরের কারাদণ্ডের মধ্য দিয়ে তার পাপের প্রায়শ্চিত্য শেষ হচ্ছে না। অদূর ভবিষ্যতে হত্যা সংক্রান্ত একাধিক মামলায় আরও কঠোর শাস্তির মুখে পড়তে যাচ্ছেন এ ধর্ষকগুরু।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এবিপি আনন্দের প্রতিবেদনে বলা হয়, দুই নারী শিষ্যাকে ধর্ষণের মামলার রায় ঘোষণা করা হলেও গুরমিত সিংয়ের বিরুদ্ধে আরও একাধিক মামলার রায় প্রদান বাকি রয়েছে। ওই মামলাগুলো হত্যা সংক্রান্ত। আর সে কারণে এসব মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলে তিনি আরও কঠোর সাজার মুখোমুখি হবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

গুরমিতের বিরুদ্ধে অন্য যে মামলাগুলো চলছে তার মধ্যে একটি হল সাংবাদিক রামচন্দ্র ছত্রপতির হত্যা মামলা। সিরসায় ‘পুরা সাচ’ নামে একটি স্থানীয় দৈনিক পরিচালনা করতেন এ সাংবাদিক। ২০০২ সালের অক্টোবরে গুরমিতের হাতে এক নারী শিষ্যার ধর্ষিত হওয়ার খবর প্রকাশ করার পর তিনি নিহত হন।

রঞ্জিত সিং নামের এক ব্যক্তিকে হত্যার ঘটনাতেও স্বঘোষিত ধর্মগুরুর প্রতি অভিযোগের আঙুল উঠেছে। তিনি ২০০২ সালে নিহত হন। এ মামলার তদন্ত করছে সিবিআই।

এবিপি আনন্দ জানায়, দুই মামলার বিচার প্রক্রিয়া অনেক দূর এগিয়েছে।

এছাড়া ডেরা সাচ্চা সৌধার ম্যানেজার ফকিরচাঁদ গুম হওয়ার বিষয়েও অভিযুক্ত হয়েছেন গুরমিত।

পুলিশ ও সিবিআই মনে করছে, বর্তমানে ধর্ষণ মামলায় গুরমিতের কারাদণ্ড হওয়ায় অন্য মামলায় বহু সাক্ষী এবার প্রকাশ্যে এসে তার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেবেন।