সাধারণ ভোটারদের মধ্যে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্টকার্ড বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় নগরীর হ্যানে রেলওয়ে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ওয়ার্ড পর্যায়ে ভোটারদের স্মার্টকার্ড বিতরণের কার্যক্রম শুরু হয়।

এর আগে ১৮ জুলাই মঙ্গলবার খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কার্যক্রমের খুলনা পর্বের উদ্বোধন করেন নির্বাচন কমিশনার বেগম কবিতা খানম।

কেসিসির ২১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের মাঝে স্মার্টকার্ড বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য মিজানুর রহমান মিজান। খুলনা সদর থানা নির্বাচন অফিসার এবিএম শামীম মাহমুদ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শামসুজ্জামান মিয়া স্বপন।

স্মার্টকার্ড বিতরণের প্রথম দিন ভারী বর্ষণের মধ্যেও কার্ড নিতে আসা মানুষের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে। তারা বৃষ্টিতে ভিজে এসে লাইনে দাঁড়িয়ে কার্ড সংগ্রহ করেন।

খুলনা সদর থানা নির্বাচন অফিসার এবিএম শামীম মাহমুদ বলেন, আগামী ২৭ জুলাই পর্যন্ত এ ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের মধ্যে কার্ড বিতরণ করা হবে। ৭ দিনে প্রায় ১৬ হাজার ভোটারকে কার্ড দেওয়া হবে।

জেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ২১নং ওয়ার্ডের ওয়েস্ট মেকট রোড, কেডি ঘোষ রোড, ক্লে রোড, কোর্ট রোড ও জোড়াগেট (আপার যশোর রোড) এলাকার বাসিন্দারা স্মার্টকার্ড সংগ্রহ করছেন।

২৭ জুলাই পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ওয়ার্ডের বাসিন্দারা স্মার্টকার্ড সংগ্রহ করতে পারবেন। এ কার্যক্রমের আওতায় আগামী ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত সদর থানা এলাকার বাসিন্দাদের স্মার্টকার্ড বিতরণ করা হবে।

এ ছাড়া মহানগরীর ৩১টি ওয়ার্ডের ভোটারদের হাতে পর্যায়ক্রমে তুলে দেওয়া হবে স্মার্টকার্ড। এ কার্যক্রম চলবে ২০১৮ সালের ২৬ এপ্রিল পর্যন্ত।