ধর্ম ত্যাগ কর। না হয় শাস্তির মুখোমুখি হও। নিজ দলীয় সদস্যদের এমন নির্দেশনা দিয়েছে চীনের কমিউনিস্ট পার্টি। চীনের কমিউনিস্ট পার্টির মুখপত্র হিসেবে পরিচিত গ্লোবাল টাইমসকে উদ্ধৃত করে এ খবর দিয়েছে অনলাইন টাইমস অব ইন্ডিয়া। এতে বলা হয়েছে, চীনের সংবিধানে ধর্মীয় বিশ্বাসের স্বাধীনতা অনুমোদিত থাকলেও দেশটির ক্ষমতাসীন চাইনিজ কমিউনিস্ট পার্টি আনুষ্ঠানিকভাবে নাস্তিক। এ বিষয়ে ধর্ম বিষয়ক স্টেট এডমিনিস্ট্রেশনের পরিচালক ওয়াং জুওয়ান গ্লোবাল টাইমসে লিখেছেন, দলীয় সদস্যদের ধর্মীয় বিশ্বাস থাকা উচিত নয়। এটা সব সদস্যের জন্য একটি রেড লাইন বা চূড়ান্ত সীমারেখা। ওয়াং যে মন্তব্য করেছেন তা দলীয় আনুষ্ঠানিক বিধিবিধান। দলটি ধর্মীয় সহনশীলতার ক্ষেত্রে সতর্ক সহনশীলতা প্রদর্শন করে আসছে। তবে দলটির প্রায় ৯ কোটি সদস্যের ধর্মীয় বিশ্বাস থাকার বিষয়ে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। এমন মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের থিংক ট্যাংক হিসেবে পরিচিত কাউন্সিল অন ফরেন রিলেশনস। ধর্মীয় সংগঠনগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক আছে এমন সদস্যকে দল থেকে বের করে দেয়া হয় নি এতদিন। এখন ওয়াং নতুন করে তার দলের নীতির কথা প্রকাশ করেছেন। অর্থনৈতিক উন্নয়ন অথবা সংস্কৃতির বৈচিত্রের নামে কেউ কোনো সদস্য ধর্মীয় বিষয়ে সমর্থন দিতে বা জড়িত থাকতে পারবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। তিনি লিখেছেন, দলীয় সদস্যদেরকে হতে হবে মার্কসবাদী নাস্তিক। মানতে হবে দলের নিয়ম কানুন। দল যা বিশ্বাস করে তার প্রতি দৃঢ় আস্থা থাকতে হবে। তারা ধর্মীয় মূল্যবোধ অথবা বিশ্বাস রাখতে পারবেন না। সরকারি অন্য এক কর্মকর্তা বলেছেন, যদি কর্মকর্তাদের ধর্মীয় বিশ্বাস থাকে তাহলে দলের ঐক্য ক্ষতিগ্রস্ত হয়। চাইনিজ পিপলস পলিটিক্যাল কনসালটেটিভ কনফারেন্সের চেয়ারম্যান ঝু ওয়েইকুন বলেছেন, কিছু মানুষ, যাদেরকে বিজ্ঞ ভাবা হয় তারা দলের ভিতর ধর্মীয় বিশ্বাসকে সমর্থন করেন। এতে দলীয় মূল্যবোধ খর্ব হয়। ওয়াং বলেছেন, বিদেশী শক্তি ধর্মকে ব্যবহার করছে চীনে অনুপ্রবেশ করতে। এটা দেশের নিরাপত্তার জন্য হুমকি। তারা উগ্রবাদ ব্যবহার করে। অবৈধ ধর্মীয় কর্মকা- চালায় বিভিন্ন এলাকায়।