রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীন ও রাশিয়াকে আরো মানবিক হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
কাদের বলেন, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনী ও দোসরদের গণহত্য চালিয়েছে। সেদেশ থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে লাখ লাখ রোহিঙ্গা।
জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে চীন ও রাশিয়া রাখাইন রাজ্যে চলা সহিংসতার নিন্দা জানালেও দেশ দুটি মিয়ানমারের প্রতি নমনীয় মনোভাব ব্যক্ত করেন। চীনা রাষ্ট্রদূত শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষায় মিয়ানমারের সেনাবাহিনী যে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে তার প্রতি সমর্থন জানান।
ওই বৈঠকে রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অভিযান বন্ধ ও সেখানে মানবাধিকার কর্মীদের প্রবেশের দাবি জানান জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস।
চীন ও রাশিয়ার সমালোচনা করে সেতুমন্ত্রী দেশ দুটিকে এমন অবস্থান থেকে সরে আসারও আহ্বান জানান।
আজ (শুক্রবার) সকালে রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দিরে শারদীয় দুর্গাপূজার মহানবমী পরিদর্শনে গিয়ে ওবায়দুল কাদের দুই দেশের সমালোচনা করেন।
তিনি বলেন, একদিকে ত্রাণের আশ্বাস, অন্যদিকে একটি অমানবিক গণহত্যাকে সমর্থন করা এক ধরনের দ্বিচারিতা। আমরা বিশ্বাস করি চীন ও রাশিয়া এই দ্বিচারিতা থেকে ফিরে আসবে।