রাজধানীর পশ্চিম নাখালপাড়ার ‘রুবী ভিলা’ জঙ্গি আস্তানায় জঙ্গিরা ওই ফ্ল্যাটের চুলার গ্যাস পুরোপুরি ছেড়ে দিয়ে তার ওপর গ্রেনেড রেখে পুরো ছয় তলা ভবনটি ধসানোর পরিকল্পনা করেছিলো বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ। ।

পশ্চিম নাখালপাড়ায় জঙ্গি আস্তানা ‘রুবী ভিলা’ পরিদর্শনের পর শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) সকালে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ কথা জানিয়েছেন র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ।

তিনি জানান, জঙ্গিারা পুরো ছয় তলা ভবনটি ধসানোর পরিকল্পনা করেছিলো। তবে র‌্যাবের অভিযানের মুখে তাদের সে অপচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। অভিযানকালে র‌্যাবের ওপর গুলি-গ্রেনেড ছোড়ার পাল্টা জবাবে তারা নিহত হয়েছে।

এদিকে র‌্যাবের অভিযানের পর ছয় তলা ভবনটির পঞ্চম তলার ‘আস্তানা’য় ৩ জনের মরদেহ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) দিনগত মধ্যরাতের পর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও এমপি হোস্টেলের ঠিক পেছনে ১৩/১ রুবী ভিলায় ‘জঙ্গি আস্তানা’র সন্ধান পেয়ে অভিযানে নামেন র‌্যাব সদস্যরা। সকাল পর্যন্ত অভিযানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার পর সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন র‌্যাব ডিজি।

তিনি পরিদর্শনের পর সকার ১০টার দিকে সাংবাদিকদের বলেন, আস্তানায় একাধিক সুইসাইডাল ভেস্ট, মরদেহের পাশে পিস্তল, বিস্ফোরক, অবিস্ফোরিত ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আইইডি) ও কিছু বাল্ব পাওয়া গেছে। অভিযানকালে তারা আমাদের র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি-গ্রেনেড ছোড়ে। আমরা দেখেছি ওই ফ্ল্যাটের চুলার গ্যাস পুরোপুরি ছেড়ে দিয়ে তার ওপর গ্রেনেড রেখে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে গোটা ভবন ধসিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছিল জঙ্গিরা।

র‌্যাব ডিজি জানান, অভিযানস্থলে এরইমধ্যে র‌্যাবের বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট কাজ শেষ করেছে। তারা এখন ক্রাইম সিন ইউনিটকে আসার অনুরোধ করেছেন।

বেনজীর আহমেদ জানান, আস্তানায় তিনটি মরদেহ পাওয়া গেছে। সেখানে ছবিসহ একটি জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি কার্ড) পাওয়া গেছে, যেখানে নাম লেখা জাহিদ। ঠিক একইরকম আরও একটি ফটোকপি এনআইডি কার্ড পাওয়া গেছে, সেখানে নাম লেখা সজিব। আমরা দু’টিই সংগ্রহ করেছি। তবে ধারণা করছি এ দু’টি এনআইডি কার্ডই ভুয়া। আলামত সংগ্রহ করছি, তদন্ত করে জানানো হবে।

নিহত জঙ্গিরা সপ্তাহখানেক আগে ৪ জানুয়ারি বাড়িটিতে মেস হিসেবে ভাড়ায় ওঠে। বাড়ির মালিক সাব্বির (৫০) মেস ভাড়া দেওয়ার জন্য কেয়ারটেকার রাখলেও এই ভাড়াটিয়াদের ব্যাপারে কিছু জানতেন না। কেয়ারটেকার রুবেলের মাধ্যমে এই তিন জন ফ্ল্যাটটিতে ওঠেন।

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ির মালিক সাব্বিরকে হেফাজতে নিয়েছে র‌্যাব। মুফতি মাহমুদ খান জানিয়েছেন, প্রয়োজনে এ ঘটনার সংশ্লিষ্ট সবাইকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here