১. মক্কা-মদিনায় জানাজার নামাজে একদিকে সালাম ফেরানো হয়। কিন্তু আমাদের দেশে দুই দিকে সালাম ফেরানো হয় কেন?

নীতিগতভাবে ইসলামী ব্যাংকিং এ সুদের কোনো সুযোগ নেই

উত্তর: আমাদের দেশে দুদিকে সালাম ফেরানো হয় এটা হানাফি ও শাফি মাজহাবের ওলামাদের অভিমত। তাদের গবেষণায় জানাজার নামাজে অন্যান্য নামাজের মতো সালাম ফেরানোর বিষয়ে বলা হয়েছে। যেহেতু আমাদের দেশের প্রায় সবাই হানাফি মাজহারের অনুসারী, তাই এখানে সালাম দুইদিকে ফেরানো হয়।
আর বিখ্যাত ছয় সাহাবির মতবাদের ভিত্তিতে মক্কা-মদিনায় এক সালামে জানাজা নামাজ শেষ করা হয়। তাদের ব্যাখ্যা হচ্ছে রসুল (সা:) জানাজার নামাজে শুধুমাত্র ডান দিকে সালাম ফেরাতেন। এ জন্য মক্কা-মদিনার সঙ্গে আমাদের এমন পার্থক্য দেখা যায়।
২. নারীদের দীনি শিক্ষার ক্ষেত্রে কওমি মাদরাসা নাকি আলিয়া মাদরাসাকে প্রাধান্য দেয়া হবে?
উত্তর: আসলে আলিয়া মাদরাসায় একটি পূর্ণাঙ্গ সিলেবাস থাকে। যেটা দুনিয়া ও আখেরাতের উভয়ের একটি সমন্বয় থাকে। আবার কওমি মাদরাসাগুলোতে দীনি সিলেবাস পড়ানো হয়। সেটাও একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক। তবে যেখানেই পড়ানো হোক না কেন, মেয়েদেরকে আলাদাভাবে পড়ানোই ভালো।
৩. ইসলামী ব্যাংকগুলো যে লভ্যাংশ দেয় সেগুলো কি সুদের মধ্যে পরে?
উত্তর: না এগুলো সুদের মধ্যে পরার নীতিগত কোনো সুযোগ নেই। আল্লাহ ব্যবসায়কে হালাল আর সুদকে হারাম করেছেন। এখানে একটি পার্থক্য হচ্ছে লোন দিয়ে সেখান থেকে বাড়তি কিছু নেয়া হারাম আর বিনিয়োগ ভিত্তিক লেনদেন হলে সেখান থেকে লভ্যাংশ নেয়া হালাল।