সীমিত ওভারের ক্রিকেট সিরিজ খেলতে নিউজিল্যান্ড সফরে শুরু থেকেই হোঁচট খাচ্ছিল পাকিস্তান। পাঁচ ম্যাচের সিরিজের প্রথম দুটিতে হেরে এমনিতেই পিছিয়ে ছিল সফরকারীরা। তবে তৃতীয় ওয়ানডেতে লজ্জার রেকর্ড গড়তে হলো ১৯৯২ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের।

আজ শনিবার ডানেডিনের ইউনিভার্সিটি ওভালে ২৭ ওভার দুই বলে মাত্র ৭৪ রানে অল আউট হতে হয়েছে সরফরাজ আহমেদের দলকে। এতে ১৮৩ রানের বিশাল জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে স্বাগতিকরা। এদিন দুই ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ ৩-০তে জিতে নিয়েছে ব্ল্যাক ক্যাপসরা।

এর আগে ১৯৯২ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৭৪ রানেই অলআউট হয়েছিল পাকিস্তান দলকে। সেবার অবশ্য ৪০.২ ওভার ব্যাট করে দলটি। পরের বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বিসব্রেনে ৭১ রানে অলআউট হতে হয়েছিল উপমহাদেশের অন্যতম পরাশক্তিকে। আর ওটিই তাদের সর্বনিম্ন স্কোর।
এদিন টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। নির্ধারিত ৫০ ওভারের শেষ বল পর্যন্ত ২৫৭ রানে অলআউট হয় কিউইরা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ট্রেন্ট বোল্ট ঝড়ে লণ্ডভণ্ড হতে হয় পাকিস্তান দলকে। একাই পাঁচ উইকেট তুলে ম্যাচ সেরা হন বিশ্বের অন্যতম সেরা এ পেস তারকা। এক পর্যায়ে ৩৮ রানেই ৮ উইকেট হারিয়ে ফেলে বর্তমানে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয়ীরা।
মজার বিষয় হচ্ছে সবার শেষে ব্যাট করতে নেমে দলের হয়ে সর্বোচ্চ ১৬ রান করেন রুম্মান রইস। ব্যক্তিগত ১৪ রান করে তুলে নেন অধিনায়ক সরফরাজ আহম্মেদ ও মোহাম্মদ আমির। এছাড়া ১০ রান করেন ফাহিম আশ্রাফ। এছাড়া কেউই দুই অংকের ঘরে পৌঁছাতে পারেননি। কিউই বোলারদের মধ্যে কলিন মুনরো দুটি ও লকি ফার্গুসন তুলে নেন দুটি করে উইকেট।
দিনের শুরুতে নিউজিল্যান্ড দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন উইলিয়ামসন। এছাড়া রস টেইলর ৫২ ও মার্টিন গাপটিল করেন ৪৫ রান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here