ফের পরমাণু কর্মসূচি চালুর হুমকি দিলো ইরান। বুধবার পার্লামেন্টে দেয়া ভাষণে দেশটির প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি এ হুমকি দেন।
তিনি বলেন, পরমাণু কার্যক্রম সংক্রান্ত আলোচনার জন্য প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মোটেও কোনো ভালো প্রতিপক্ষ নয়। তিনি নির্ভরযোগ্য নয়।
ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, আর কোনো অবরোধ আরোপ হলে আমরা নতুন করে পরমাণু কার্যক্রম শুরু করবো।
ইরানের উপর আমেরিকার অবরোধ আরোপ ২০১৫ সালে করা চুক্তির খেলাপ বলে মন্তব্য করেন তিনি।
ইরানের সঙ্গে বিশ্বের ক্ষমতাধর ছয় জাতি একটি চুক্তিতে উপনীত হয়। এ চুক্তিতে ইরান তার পরমাণু কার্যক্রম গুটিয়ে নেয়ার অঙ্গীকার করে। অন্যদিকে ইরানের উপর থেকে তুলে নেয়া হয় অর্থনৈতিক অবরোধ।
তবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর থেকেই ওই চুক্তির প্রতি নেতিবাচক মন্তব্য করতে থাকে। পরবর্তীতে একটি অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞাও জারি করে।
এদিকে সাম্প্রতিক আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক ঘটনাবলী বিশেষ করে সিরিয়ার চলমান সংকট এবং ইরানের পরমাণু সমঝোতা নিয়ে টেলিফোনে আলোচনা করেছেন রুহানি-পুতিন।
টেলিফোন সংলাপে প্রেসিডেন্ট রুহানি ইরান ও রাশিয়ার মধ্যকার চমৎকার সম্পর্কের কথা উল্লেখ তা আরো শক্তিশালী করার ওপর জোর দিয়েছেন। এ সময় তিনি বিশেষ করে বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক খাতে সম্পর্ক বাড়ানোর কথা বলেন।
হাসান রুহানি বলেন, ইরানের তেল ও জ্বালানি খাতের মতো বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ খাতের অবকাঠামো নির্মাণে রুশ বিনিয়োগকারীদের সক্রিয় উপস্থিতিকে তেহরান স্বাগত জানায়।
রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, ইরানের অবকাঠামো খাতের প্রকল্প বাস্তবায়নে রুশ বিনিয়োগকারীরা আগ্রহী এবং তিনি এসব প্রকল্পে অংশ নেয়ার বিষয়ে আগে সই হওয়া চুক্তিগুলো বাস্তবায়নের তাগিদ দেন। তিনি বিভিন্ন ক্ষেত্রে তেহরান ও মস্কোর মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠার গুরুত্বারোপ করেন।