বাংলাদেশের অন্যতম ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বাংলালিংক আয়োজিত দেশের প্রথম ডিজিটাল রিয়েলিটি শো ‘বাংলালিংক নেক্সট টিউবার’র গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বাংলালিংক নেক্সট টিউবার

আজ শুক্রবার রাতে রাজধানীতে এক জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলালিংকের চিফ ডিজিটাল অফিসার সঞ্জয় ভাগাসিয়া, এনটিভির হেড অফ প্রোগ্রাম মোস্তফা কামাল সৈয়দ ও রেডিও ফুর্তির সিইও মো. রেজাউল হক।
দেশের তরুণ প্রজন্মকে উন্নতমানের ভিডিও কন্টেন্ট নির্মাণে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে আয়োজিত এই শো দেশব্যাপি বেশ সাড়া ফেলে। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করা ৯ হাজারেরও বেশি প্রতিযোগী থেকে পর্যায়ক্রমে বাছাই প্রক্রিয়া শেষে নির্বাচিত করা হয়েছে বিজয়ীদের। শিক্ষা, অভিনয়, সঙ্গীত, নৃত্য ও লাইফস্টাইলসহ বিভিন্ন বিষয়ের উপর নির্মিত ভিডিও কন্টেন্ট সাবমিট করে এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন প্রতিযোগীরা।
প্রতিদ্বন্দিতাপূর্ণ এই প্রতিযোগিতায় ভিডিও কন্টেন্ট নির্মাণে অসামান্য দক্ষতা দেখিয়ে বিচারকদের রায় ও দর্শকদের লাইকের ভিত্তিতে বিজয়ী হয়েছেন র‍্যাপ ব্যাটেল ভিত্তিক ভিডিও কন্টেন্ট নির্মাতাদের চ্যানেল ফিউসান প্রোডাক্টসান-এর আহনাফ নাসিফ ও রাফিদ মাহাদী।
প্রথম ও দ্বিতীয় রানার-আপ হয়েছেন যথাক্রমে কৌতুক ভিত্তিক ভিডিও কন্টেন্ট নির্মাতা রাসেল তপু ও শিক্ষা বিষয়ক ভিডিও কন্টেন্ট নির্মাতা সাদমান সাদিক। বিজয়ী, পুরস্কার হিসেবে পাচ্ছেন ১ লাখ ৫০ হাজার টাকার প্রাইজমানি, সিঙ্গাপুরে গুগলের এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের হেড কোয়ার্টারে প্রশিক্ষণ ও বাংলালিংকের ডিজিটাল অ্যাম্বাসেডর হওয়ার সুযোগ। “বাংলালিংক নেক্সট টিউবারের” বিচারক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন ইউটিউব তারকা সালমান মুক্তাদির, সৌভিক আহমেদ, তামিম মৃধা ও আসিফ আজাদ।
সঞ্জয় ভাগাসিয়া বলেন, দেশের তরুণ ভিডিও কন্টেন্ট নির্মাতাদের জন্য একটি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম গঠন করার লক্ষ্যে আমরা ‘বাংলালিংক নেক্সট টিউবার’ আয়োজন করেছিলাম। অভিনব এই আয়োজনের সিজন-১ সফলভাবে সম্পন্ন করতে পেরে আমরা আনন্দিত।
সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, বিনোদন এবং শিক্ষার নতুন মাধ্যম হিসেবে যোগ হয়েছে ভিডিও কন্টেন্ট নির্মাণ। ভিডিও কন্টেন্ট নির্মাণে আমাদের তরুণদের এই শিক্ষণীয় ও বিনোদনমূলক বুদ্ধিদীপ্ত পদচারণা আমাকে দারুণভাবে আশান্বিত ও মুগ্ধ করেছে। এ ধরনের উদ্যোগ সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের প্রক্রিয়াকে ত্বরান্বিত করবে।
গ্র্যান্ড ফিনাল অনুষ্ঠান আগামী ২৪ নভেম্বের শুক্রবার রাত ৯টায় দেখানো হবে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এনটিভি। গেলো ১৮ সেপ্টেম্বর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই আয়োজন শুরু হয়।