দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে প্রথম টেস্টে বিশাল হারের পর বিপর্যস্ত পুরো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। দলের ভক্ত-সমর্থকরাও বিস্মিত হয়েছেন এমন হারে। ৩৩৩ রানে হারের চেয়ে বড় কথা শেষদিনের এক সেশনও টিকতে না পারা। অথচ হাতে ছিল ৭ উইকেট! দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশ অলআউট মাত্র ৯০ রানে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে যা টাইগারদের সর্বনিম্ন টেস্ট ইনিংস।

ব্যার্থতা স্বীকার করে জাতির কাছে ক্ষমা চাইলেন মুশফিক

এমন লজ্জার পর ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে নিজেদের ব্যর্থতা স্বীকার করে নিয়ে দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাইলেন টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম। হারের পেছনে কোনো অজুহাত দাঁড় করাননি তিনি। পরবর্তী টেস্টে ভাল করার প্রত্যয়ও ছিল তার কণ্ঠে।
দক্ষিণ আফ্রিকার দেয়া ৪২৪ রানের লক্ষ্যের পেছনে ছুটতে গিয়ে রোববার টাইগাররা হারিয়েছিল ৩ উইকেট। এই বিপর্যয় সামাল দেয়ার জন্য পঞ্চম দিনের শুরুতে যেমন ব্যাটিংয়ের দরকার ছিল তা করতে পারেনি টাইগাররা। তাদের যাওয়া-আসার মধ্যেই পড়ে যায় বাংলাদেশের সবকয়টি উইকেট। এই দলে ছিলেন অধিনায়ক মুশফিক নিজেও। সেটা স্বীকার করে নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি আসলেই হতাশ। সত্যি বলতে শেষ কবে আমরা এমন ব্যাটিং করেছি মনে পড়ে না। যদিও উইকেট ব্যাটিং এর জন্য ভাল ছিল তবুও আমি জানতাম শেষ দিনে দক্ষিণ আফ্রিকার বোলারদের খেলা সহজ হবে না। ভেবেছিলাম অন্তত দুই সেশন ব্যাট করতে পারব।’
দেশের কাছে ক্ষমা চাইতে গিয়ে মুশফিক বলেন, ‘একটি ম্যাচ হারা বা ড্র করার অনেক কারণ থাকে। কিন্তু আমরা আমাদের দক্ষতা ও খেলোয়াড়ি মনোভাব দেখাতে পারিনি এই ম্যাচে। আমিও অনেক কষ্ট পেয়েছি। আমি দেশের কাছে ক্ষমা চাচ্ছি।