আদিকাল থেকেই নারীর প্রথম বায়না ছিল গয়না। আর এই বায়নার ফর্দে একজোড়া কানের দুল বরাবরই ছিল শীর্ষে। একসময় মেয়েরা কানে জুড়ে দিত ছোট কিংবা মাঝারি মানের সোনার রিং। কিন্তু সময়ের পরিক্রমায় নানা আকৃতির সেকেলে দুলগুলো হটিয়ে হালে জায়গা করে নিয়েছে ঢাউস আকৃতির কানের দুল। গোলাকার থেকে শুরু করে ঝোলানো সব কিছুতেই ‘বিরাট’-এর জয়জয়কার। নামকরা জুয়েলারি ডিজাইনার এবং স্টাইলিস্টদের মতে ২০১৮ সাল হতে যাচ্ছে বড় কানের দুলের বছর।

১. নানা রঙ ও আকৃতির কাঁধ ছোঁয়ানো দুলগুলো অনায়াসেই আপনি দেখতে পাবেন বলিউড ও হলিউডের বিভিন্ন তারকাদের কানে। কান থেকে কাঁধ অবধি নেমে যাওয়া একটু ডিম্বাকৃতির ঝুমকার ন্যায় ইয়ার রিংগুলোও বেছে নিতে পারেন আপনার স্টাইলে।

২. এত সব তারকার পছন্দের তালিকায় শ্যান্ডেলিয়ার রিং দেখে নিশ্চয় বুঝতে পারছেন এর দাপট-খানা খুব সহসাই স্তিমিত হবার নয়।

৩. সুন্দর ও জমকালো এই দুলে যদি আপনার কান সাজাতে না চান, সেক্ষেত্রে বেছে নিতে পারেন পেনোলোপি ক্রুজ, কেট উইন্সলেট ও মিশেল ওবামার পছন্দের ড্রপ ইয়ার রিং।

৪. এছাড়া কানকে ছিদ্র না করতে চাইলে পরতে পারেন ভিনটেজ ক্লিপ ইয়ার রিং।

৫. দুমড়ে মুচড়ে বিভিন্ন ধাতু দিয়ে বানানো বিশালাকার ইয়ার রিং ও বেছে নিতে পারেন।

৬. অন্যদিকে রোজকার ঘোরাঘুরি থেকে শুরু করে জমকালো অনুষ্ঠানে আপনি হয়ে উঠতে পারেন অনন্য এথনিক জুয়েলারির ব্যবহারে। ক্ল্যাসিক ডিজাইনের একজোড়া ওভারসাইজড এথনিক ইয়ার রিং নিঃসন্দেহে আপনার জুয়েলারি বক্সকে করবে সম্পূর্ণ।

৭. আর লেটেস্ট ট্রেন্ড হিসেবে হুপ ইয়ার রিং খুব ফ্যাশনেবল তো বটেই। বন্ধুদের আড্ডা, লাইট পার্টি কিংবা অফিস পার্টিসহ সব জমকালো পার্টিতেই আপনি পরতে পারেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি থেকে হিলারি ডাফ সবারই পছন্দে হুপ ইয়ার রিং।

৮. হাল ফ্যাশনে সব বয়সী নারীর মাঝেই জনপ্রিয়তা পাচ্ছে জাংক জুয়েলারি। মেটাল, বিডস, পিতল, বাঁশ, কাঠ, হাড়গোড়, মাটি, সুতা, ধাতু, পালক, নারিকেলের মালা, ঝিনুক, শামুকের খোলাসহ বিচিত্র সব উপকরণ দিয়ে তৈরি করা হয়ে থাকে এসব কানের দুল।

কোন আউটফিটের সঙ্গে কানের দুল পড়তে চান? মনে রাখবেন, যেকোন আউটফিটের সঙ্গেই মিলিয়ে বেছে নিতে পারেন কানের দুল। তবে যাই পরুন না কেন তার প্রকাশ ভঙ্গিমায় থাকা চাই স্বকীয়তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here