২০১৪ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর মোদি সরকারের প্রধান লক্ষ্য ছিল স্বচ্ছ ভারত গড়ে তোলা। ভারতের সব বাড়িতে টয়লেট তৈরি করার বাধ্যতামূলক করা হবে বলেও নির্বাচনি প্রচারণা চালিয়েছিলেন মোদি।

নির্বাচনে জয়ী হয়ে তিন বছর হয়ে গেল মোদি সরকারের। কিন্তু একি! টয়লেট নেই খোদ নরেন্দ্র মোদির জন্মস্থান গুজরাটের মেহসানা জেলার ভাদনগর গ্রামে।

মোদির কাছে তাদের গ্রামের লোকদের একটিই চাওয়া;তাদের প্রয়োজন টয়লেট!
ভারতের সংবাদমাধ্যমের বরাতে জানা গেছে, ত্রিশ হাজার লোকের পৌরসভাটিতে প্রায় পঁচিশটি বাড়িতে নেই কোন টয়লেট। পয়ঃনিষ্কাশনের ড্রেনগুলো সব খোলা। নর্দমাগুলো ময়লায় বন্ধ হয়ে আছে।

মূলত ঐতিহাসিকভাবে ভাদনদর গ্রামটি গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় গ্রামটিকে পর্যটন স্থান হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে। গ্রামটিতে ওয়াইফাই এর ব্যবস্থা থাকলেও দর্শনার্থীদের জন্য নেই কোন টয়লেট।

গ্রামের সকল বয়সী লোকজন মাঠেই মলত্যাগ করে। কোন দর্শনার্থী টয়লেটের কথা জিজ্ঞেস করলে গ্রামের লোকেরা তাদের মাঠ দেখিয়ে দেয়।

মোদির গ্রামের নির্মলা বেন নামের একজন নারী জানান, নির্বাচনের আগে আমাদের প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিল, আমরা মাথার ওপর ছাদ ও টয়লেট পাবো; কিন্তু বাস্তবে তার কোনটাই পাইনি। মোদির সরকার তাদের কথা রাখেনি বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

লাল একটি টিনের ক্যান তুলে দেখান মনি বেন নামের এক বয়স্ক নারী। সেই ক্যানে পানি ভরে প্রতিদিন তাকে মাঠে যেতে হয় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেওয়ার জন্য। সেখানে পুরুষ ও নারিদের মলত্যাগের জন্য রয়েছে আলাদা মাঠ।