শর্ত মতো আত্মসমর্পণের জন্য খাদিজার বাবা-মা’কে ঘটনাস্থরে হাজির করা হয়।

যশোর শহরের ঘোপ নওয়াপাড়া রোডের জঙ্গি আস্তানা থেকে শীর্ষ জঙ্গি নুরুল ইসলাম মারজানের বোন খাদিজা তিন শিশু সন্তানসহ আত্মসমর্পণ করেছেন।

সোমবার বেলা ৩টার দিকে বাবা-মায়ের উপস্থিতিতে খাদিজা আত্মসমর্পণ করেন।
বর্তমানে খাদিজা, তার মা-বাবা ও তিন সন্তান বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।
কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম আজমল হুদা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, খাদিজার দেওয়া শর্ত অনুযায়ী তার বাবা-মাকে হাজির করা হলে এক পর্যায়ে খাদিজা আত্মসমর্পণ করেন।

এর আগে, সোমবার বেলা ১১টা ১৫ মিনিটের দিকে যশোরের পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান হাত মাইকে খাদিজা ও তার পরিবারের সদস্যদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানান।

এসময় ঘটনাস্থলে পুলিশ, র‌্যাব ছাড়াও ঢাকা থেকে আসা সোয়াট, বোমা ডিসপোজাল ইউনিট এবং কাউন্টার টেরোরিজম (সিটিইউ) সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

ভবন সংলগ্ন অন্যান্য ফ্ল্যাটের বাসিন্দারা জানান, ওই বাসার লোকজন খুবই কম বাইরে আসতো, তবে পুরুষ লোকটি মাঝে-মধ্যে বাইরে যেতে দেখা যেতো। ওই বাসায় দুইটি ছেলে এবং একটি মেয়ে শিশু রয়েছে। তবে তাদেরকেও অন্যদের সঙ্গে মিশতে দিতো না অবিভাবকরা।