‘ডার্টি পিকচার’ দিয়ে যখন জনপ্রিয়তার তুঙ্গে আরোহণ অভিনেত্রী বিদ্যা বালনের, তখন থেকেই যৌনতা নিয়ে খোলামেলা কথা বলার পক্ষে তিনি। এবার বললেন, যৌনতা দৈনন্দিক কাজের মতোই স্বাভাবিক একটি বিষয়।

শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে বিদ্যা বালনের নতুন সিনেমা ‘তুমহারি সুলু’। এই সিনেমায় তিনি অভিনয় করেছেন মধ্যবয়সী এক গৃহবধূর চরিত্রে, হঠাৎ করেই রেডিও জকির কাজ পেয়ে পাল্টে যায় যার জীবন। মধ্যরাতের ওই অনুষ্ঠানে তিনি হয়ে ওঠেন আবেদনময়ী এক নারী, যার কণ্ঠস্বর শুনতে জেগে থাকে প্রেমিক পুরুষেরা!

অবধারিতভাবেই এই সিনেমার প্রচারণায় বারবার উঠে এসেছে যৌনতার প্রসঙ্গ।

বিদ্যার এব্যাপারে মত, ‘এটা খুবই হাস্যকর যে বিশ্বের অন্যতম জনবহুল দেশ হয়েও, সর্বসমক্ষে আমরা সেক্স নিয়ে কথা বলতে পারি না। এখানে সেক্স বিষয়টাকে খুব নিচু করে দেখানো হয়। কারণ এ দেশের সংস্কৃতিতে যৌনতা মানেই বিয়ে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সেক্স আর পাঁচটা কাজের মতোই একটা কাজ। যেমন আমরা বলি চলো ওয়াশিং মেশিন চালাই। তেমনই বলা উচিত চলো, সেক্স করি।’

বিদ্যা মনে করেন যৌনতার কথা সবার আনন্দের সঙ্গে বলতে পারা উচিৎ।

এ ব্যপারে তার বক্তব্য, ‘যৌনতার মধ্যে যে আনন্দ রয়েছে, সেটাই এখানে ভুলে যায় সবাই।আমাদের এ নিয়ে নতুন করে ভাববার দিন এসেছে।… সেক্স একটা অনুভূতি, কোনও ট্যাবু নয়।’

‘তুমহারি সুলু’ ছাড়াও এই বছরে মুক্তি পেয়েছে বিদ্যা অভিনীত ‘বেগমজান’। সিনেমাটি মুখ থুবড়ে পড়েছিরো বক্স-অফিসে।