রাখাইনে রোহিঙ্গা অধ্যুষিত ৪৭১টি গ্রামের মধ্যে ১৭৬টি গ্রামই জনশূন্য বলে জানিয়েছেন মিয়ানমার সরকারের এক মুখপাত্র। এছাড়া, আরো ৩৪টি গ্রাম প্রায় পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে বলেও জানান তিনি।

মিয়ানমার প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র জাও হাতা বলেন, চলতি বছরের আগস্টে ৪৭১টি রোহিঙ্গা গ্রামকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করে ক্লিয়ারেন্স অপারেশন শুরু করে সেনাবাহিনী।

ইতোমধ্যে রোহিঙ্গা অধ্যুষিত ৪০ শতাংশ এলাকায় রোহিঙ্গাদের আর কোনো অস্তিত্ব নেই। জাতিসংঘ বলছে, রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অভিযানের হাত থেকে বাঁচতে এরইমধ্যে বেশিরভাগ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে।