গ্রুপ পর্বের হাই ভোল্টেজ লড়াইয়ে রাতে মুখোমুখি হবে পিএসজি ও বায়ার্ন মিউনিখ। চোট কাটিয়ে দলে ফিরতে প্রস্তুত ব্রাজিলিয়ান সেনসেশান নেইমার। এদিকে আরেক ম্যাচে ইংলিশ চ্যাম্পিয়ন চেলসি লড়বে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে। এছাড়া বার্সেলোনার প্রতিপক্ষ স্পোর্টিং লিসবন এবং ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড খেলবে সিএসকেএ মস্কোর বিপক্ষে। সবগুলো ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত পৌনে একটায়।

ইউরোপ সেরা হতে চায় পিএসজি। সেই স্বপ্নকে সত্যি করতেই এবার পার্সিয়ানরা বিশ্ব রেকর্ড গড়ে দলে নিয়েছে নেইমার ও এমবাপেকে। নিজেদের প্রথম ম্যাচে সেল্টিককে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে ফ্রেঞ্চ জায়ান্টরা প্রতিপক্ষদের বার্তাও দিয়ে রেখেছে। তবে এবার আসল পরীক্ষার সামনে পিএসজি। গ্রুপ পর্বেই তারা মুখোমুখি ৫ বারের ইউরোপ সেরা ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখের।

গেলো সপ্তাহে লিও’র বিপক্ষে ম্যাচে পেনাল্টি শট নিয়ে নেইমার-কাভানি দ্বন্দ্বের রেশ এখনো কাটেনি। তবে পার্সিয়ানদের জন্য সুখবর চোট কাটিয়ে একাদশে ফিরতে প্রস্তুত নেইমার। একই সঙ্গে ডি মারিয়াও ম্যাচ ফিট। তাই বাভারিয়ানদের বিপক্ষে পূর্ণ শক্তির দল নিয়েই মাঠে নামবে পিএসজি। ফুটবল রোমান্টিকরাও অপেক্ষায় পিএসজির আক্রমণভাগের সঙ্গে বায়ার্নের রক্ষণের লড়াই দেখতে।

অন্যদিকে বেশ অস্বস্তি নিয়ে ফ্রেঞ্চ ক্যাপিটালে বায়ার্ন মিউনিখ। পুরনো পায়ের ইনজুরিতে পড়ে আবারো মাঠের বাইরে গোলরক্ষক ম্যানুয়েল নয়্যার। এছাড়া মৌসুমের শুরুটাও ভালো হয়নি বাভারিয়ানদের। ৬ ম্যাচে ৪ জয় ১ ড্র ও ১ হারে তারা আছে ৩য় স্থানে। কিন্তু ইউরোপিয়ান ক্লাব প্রতিযোগিতায় অভিজ্ঞতাই এগিয়ে রাখবে কার্লো অ্যানচেলত্তির দলকে। যদিও পিএসজির সঙ্গে মুখোমুখি ৬ লড়াইয়ে ২ জয়ের বিপরীতে ৪টিতেই হেরেছে পিএসজি।

এদিকে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা বার্সেলোনা মুখোমুখি হবে পর্তুগীজ ক্লাব স্পোর্টিং লিসবনের। নেইমার চলে যাবার পর ডেম্বেলেকে দলে নিয়েছে কাতালানরা। কিন্তু নিজেকে প্রমাণের আগেই সেই ডেম্বেলেও পড়েছেন ইনজুরিতে। যদিও তার কোনো প্রভাবই পড়েনি। কারণ এখন পর্যন্ত মৌসুমে শতভাগ জয়ের রেকর্ড ভালভার্দে শিষ্যদের। দুই হ্যাটট্রিকসহ ১২ গোল করেছেন লিওনেল মেসি। তাই স্পোর্টিংও বড় বাধা হবার কথা না বার্সার।

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড আবারো ফিরছে মস্কোতে। ২০০৮ সালে চেলসিকে হারিয়ে নিজেদের সবশেষ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা রেড ডেভিলরা জিতেছিল রাশিয়ার রাজধানীতে। এবার প্রতিপক্ষ দেশটির সবচেয়ে সফল ক্লাব সিএসকেএ মস্কো। এখন পর্যন্ত সিএসকেএ’র বিপক্ষে হারের রেকর্ড নেই রেড ডেভিলদের। তবে এই ম্যাচে একাদশে বেশ কিছু পরিবর্তন আনছে ইউরোপা লিগের চ্যাম্পিয়নরা। ফেল্লাইনির ইনজুরির কারণে একাদশে ফিরছেন অ্যান্ডার হেরেরা। এছাড়া বিশ্রামে থাকছেন ভ্যালেন্সিয়া ও ফিল জোনস। তারপরও হোসে মরিনহো আশাবাদী মস্কো থেকে পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে ফেরার ব্যাপারে।