ঈদের দিন কোরবানির মাংস সংরক্ষণ, অতিথি আপ্যায়ন, নামাজে যাবার আগে পরিবারের সদস্যদের মিষ্টিমুখ করানো সব মিলিয়ে রান্নাঘর সারাক্ষণ ব্যস্ত থাকে।কোরবানির ঈদে সবচে’ গুরুত্বপূর্ণ হলো রান্নাঘর।
আর ঈদের দিন যেন রান্নাঘর প্রস্তুত থাকে সেই ব্যবস্থা আগে থেকেই করে রাখা দরকার।
তাহলে জেনে নিন ঈদ আয়োজনে গৃহিণীদের প্রস্তুতিটা কেমন হওয়া উচিত।
ক্যাবিনেট
ক্যাবিনেটগুলো একেকটা বাসনের মাপ অনুযায়ী একেক রকম সাইজে বানিয়ে নিন।
প্রতিটি ক্যাবিনেটের দরজার ভেতরের দিকে নানা মাপের খুন্তা, হাতা, বড় চামচ ইত্যাদি ঝুলিয়ে রাখার আংটা রাখুন।
জায়গাজুড়ে দাঁড়িয়ে থাকা কিছু কিছু কিচেন ফার্নিচার বাতিল করে ফাঁকা ওয়ালস্পেসে কিছু হ্যাঙ্গিং ক্যাবিনেট ও শেলফ বানিয়ে নিন।
এতে করে দেখতেও সুন্দর লাগবে আবার চলাফেরার জন্য স্পেস বাড়বে।

মশলা কিনে রাখা
ঈদের আগেই মাংসের জন্য আদা, রসুন, পেঁয়াজ, হলুদ, মরিচ, তেজপাতা, গরম মশলা, গোলমরিচ, জায়ফল, শাহি জিরা, জয়ত্রী, পোস্তদানা, সয়া সস, তেল, টক দই এবং প্রয়োজনীয় জিনিস কিনে রাখুন। গুঁড়া মশলাগুলো আলাদা আলাদা কৌটায় নাম লিখে গুছিয়ে রাখুন। আদা, রসুন, পেঁয়াজ বেটে রাখুন। তাহলে প্রয়োজনের সময় সহজেই খুঁজে পাওয়া যাবে। গরম মসলা আর জিরা বেশি আলোতে না রাখা ভালো। এতে গন্ধ বা নষ্ট হয়ে যায়।
পোলাওয়ের চাল কিনে রাখ
আগে থেকে পোলাওয়ের চাল কিনে রাখতে পারেন, যেন দাম বাড়লেও পরিমাণ মতো প্রয়োজনীয় সময়ে হাতের কাছে পান। তার জন্য কয়েকটা নিমপাতা ফেরে রাখুন। এছাড়া চাপ-কাটলেট বা পরোটা তৈরিতে আটা, ময়দা বা বেসন প্রয়োজন হতে পারে। এসব উপকরণ পোকা থেকে বাঁচাতে কয়েকটি মেথিপাতা দিয়ে রাখুন।
বিস্কুটের গুড়া তৈরি রাখুন
বিস্কুটের গুড়া প্রয়োজন হতে পারে ফ্রাইড চিকেন তৈরির জন্য। আর তাই চেষ্টা করুন বিস্কুটের গুঁড়ার কৌটায় ব্লটিং পেপার দিয়ে রাখতে।

দা-ছুরি-বটি ধার করানো
ঈদের আগে পাড়া মহল্লায় দা-বটি ধার করানোর অনেক লোক পাওয়া যায়। এ সময়টায় যেহেতু দা, বটি ও ছুরি দিয়ে মাংস ও শক্ত হাড় কাটতে হয় তাই এগুলো আগে থেকেই ধার করিয়ে নেয়া উচিত। তা না হলে মাংস কাটা ঝামেলা হয়ে যাবে। এক ছুরি দিয়ে সবকিছু কাটতে ব্যবহার করুন এক টুকরা লেবু। কাটা হয়ে গেলে সঙ্গে সঙ্গে ছুড়ির দু’পাশে ঘষে নিন লেবু।
ব্যাগ জোগাড় করুন
কোরবানির ঈদ মানেই তো এই বাড়ি ওই বাড়িতে মাংস বিলাতে যাওয়া। আর এই জন্য প্রয়োজন প্রচুর পলি ব্যাগের। তাই আগে থেকেই এই ব্যাগ জোগাড় করে না রাখলে ঈদের দিন বেশ বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। তাছাড়া নিজের বাসাতেও ডিপ ফ্রিজের ভেতরে মাংস, কলিজা, মগজ ইত্যাদি আলাদা আলাদাভাবে রাখার জন্যও প্রয়োজন উপযুক্ত পলি ব্যাগ।