শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণসহ ১১ দফা দাবি আদায়ে মানবন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে শিক্ষকরা।

রোববার সকালে শহরের পায়রা চত্বরে এ কর্মসূচির আয়োজন করে শিক্ষক কর্মচারী সংগ্রাম পরিষদ ঝিনাইদহ জেলা শাখা।

ঘণ্টাব্যাপী চলা এই কর্মসূচিতে ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে আসা শিক্ষকরা অংশ নেন। এ সময় বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ঝিনাইদহ জেলা শাখার সভাপতি ও শিক্ষক কর্মচারী সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক মহিউদ্দীন, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ঝিনাইদহ শাখার সভাপতি জয়া রাণী চন্দ, সাধারণ সম্পাদক ইউছুফ আলী, শিক্ষক নেতা সুব্রত কুমার মল্লিক, আব্দুল মোমিন, আব্দুল্লা আল মামুন, বিনয় কৃষ্ণ বিশ্বাস, আলমগীর হোসেন, রেজাউল করিম, মুনির হোসেন মুকুল, নিমাই চন্দ্র দে, ইছাহাক আলী, আশরাফুল ইসলাম মিঠু, জালাল উদ্দিন, মাছুদ করিম, নাজমুল হক, শরিফ হোসেন, প্রদীপ কুমার, শাহানাজ পারভীন মুন্নী প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ইতোমধ্যে সরকারি শিক্ষক কর্মচারীগণ ৫% বার্ষিক প্রবৃদ্ধি ও বৈশাখী ভাতা পেয়েছেন। কিন্তু বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীগণ ৮ম জাতীয় বেতন স্কেলে অন্তর্ভুক্ত হলেও বার্ষিক ৫% প্রবৃদ্ধি ও বৈশাখী ভাতাসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধা পাননি। তাই তারা তাদের ন্যায্য দাবি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

যদি দাবি দাওয়া মানা না হয় তাহলে ২২ জানুয়ারি হতে অবিরাম ধর্মঘট পালনের মাধ্যমে দাবি আদায়ের হুঁশিয়ারি প্রদান করেন তারা।

মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী বরাবর স্মারক লিপি প্রদান করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here