বৃটিশ উপনিবেশ থেকে স্বাধীন হওয়ার ৭০তম বার্ষিকীতে স্বাধীনতা দিবস পালন করছে সারা ভারত। এ সময় বিদেশী শত্রুদের সতর্ক করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি হুঁশিয়ার করে বলেছেন, যেকেউ আমাদের দেশের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিলে তার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ করবে ভারত। এখানে বিদেশীদের ব্যবস্থা নেয়া বলতে তিনি সামরিক পদক্ষেপকে বুঝিয়েছেন। নয়া দিল্লির ঐতিহাসিক রেড ফোর্টে দাঁড়িয়ে হাজারো মানুষের উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন মোদি। তিনি বলেন, নিরাপত্তাই হলো তার প্রধান অগ্রাধিকার।

উল্লেখ্য, দোকলাম সহ বিভিন্ন ইস্যুতে চীনের সঙ্গে উত্তেজনা বিরাজ করছে ভারতের। এ ছাড়া পাকিস্তানের সঙ্গে কাশ্মির ইস্যু, জঙ্গি তৎপরতা, সেনা অভিযান নিয়ে দীর্ঘ সময় ধরে উত্তেজনা অব্যাহত আছে। এরই প্রেক্ষিতে নরেন্দ্র মোদি সতর্ক করলেন সবাইকে।

স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে তিনি বলেছেন, সমুদ্রপথ, সীমান্ত দিয়ে অথবা সাইবার বা আকাশপথে- যেকোনো দিক দিয়ে যদি আমার দেশের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নেয়ার চেষ্টা করে কেউ তাহলে তাদের জবাব দিতে ভারতের সক্ষমতা আছে এবং ভারত যথেষ্ট শক্তিশালী।

বার্তা সংস্থা এএফপি লিখেছে, বুধবার হিমালয় উপত্যকার কৌশলগত ভূমি নিয়ে নয়া দিল্লির সঙ্গে চীনের বিরোধ দু’মাসে পড়ছে। এ নিয়ে সৃষ্ট উত্তেজনায় দু’দেশের শত শত সেনা একে অন্যের মুখোমুখি অবস্থান করছে। এশিয়ার বৃহৎ এ দুটি দেশের মধ্যে ভারতের অরুণাচল প্রদেশ নিয়ে দু’দেশের মধ্যে অবিশ্বাসের দীর্ঘ ইতিহাস আছে। এ নিয়ে ১৯৬২ সালে যুদ্ধও হয়েছে। তারপরও ওই ভূখণ্ড নিয়ে এখনও উত্তেজনার পারদ তুঙ্গে।

অন্যদিকে ১৯৪৭ সালে দেশভাগের পর থেকেই কাশ্মির নিয়ে ভারত-পাকিস্তান দ্বন্দ্ব চলছে। সম্প্রতি সেখানকার নিয়ন্ত্রণ রেখা লঙ্ঘন করে গুলি বিনিময় হয়েছে দু’দেশের সেনাদের মধ্যে। দেখা দিয়েছিল যুদ্ধপরিস্থিতি।