হাইকোর্টের বেঁধে দেয়া সময়সীমার মধ্যেই হজযাত্রীদের ভিসা জটিলতার অবসান হয়েছে বলে দাবি করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়।

ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, সোমবার (১৪ আগস্ট) পর্যন্ত এক লাখ ১৮ হাজার ৯২৪ জন হজ যাত্রীর ভিসা দিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

ঢাকায় সৌদি দূতাবাস পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে এ তথ্য জানিয়ে বলেছে, সৌদি দূতাবাসে আর কোনও ভিসার আবেদন জমা নেই।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, এ ব্যাপারে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সৌদি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করছে।

রোববার বিকালে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে হজযাত্রীদের ভিসা জটিলতার সমাধান করতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দেন।

বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মোহাম্মদ আতাউর রহমান খানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ ওই নির্দেশ দেন।

একইসঙ্গে হজযাত্রায় অব্যবস্থাপনার জন্যে দায়িদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে তদন্ত কমিশন গঠনে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল দেন আদালত।

ধর্ম সচিব, বেসামরিক বিমান ও পর্যটন সচিব, পররাষ্ট্র সচিব ও হজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) মহাসচিবসহ পাঁচ জনকে চার সপ্তাহের মধ্যে এর জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এরআগে হজ ব্যবস্থাপনা তদন্ত এবং হজ গমনেচ্ছুদের পাঠানোর নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়। হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে ওই রিট দায়ের করেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ।

রিটে হজ অব্যবস্থাপনায় দায়িদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। যাত্রী সঙ্কটের কারণে তখন পর্যন্ত ২৭টি হজ ফ্লাইট বাতিল হয়েছিল। এর মধ্যে ২৩টি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের আর বাকি চারটি সৌদি এয়ারলাইন্সের।